Ration Card:কোটি কোটি রেশন গ্রাহক এবার এই সুবিধা পাবেন!নির্দেশ আদালতের! কিভাবে পাবেন জেনেনিন

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

রেশন কার্ড ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এসেছে। এবার লাভ হতে যাচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। (Ration Card) ডিজিটাল পদ্ধতির ব্যবহার প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। আর এ বার রেশন কার্ডে যোগ হয়েছে মোবাইল নম্বর, আধার নম্বর। ফলস্বরূপ, একজন নাগরিক তার বায়োমেট্রিক তথ্য ব্যবহার করে ভারতের যে কোনও প্রান্ত থেকে তার রেশন তুলতে পারবেন। কেন্দ্রের ই-শ্রম পোর্টালে প্রায় ২৯ কোটি অভিবাসী শ্রমিক নিজেদের নিবন্ধন করেছেন। কিন্তু তারা সবাই রেশনের সুবিধা পাচ্ছেন না।

এবারে এনাদের কথা মাথায় রেখেই Ration Card ব্যবস্থায় আনা হচ্ছে আমুল বদল। এই সকল নথিভুক্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে ৮ কোটি শ্রমিকের নাম নথিভুক্ত করা নেই রেশন কার্ডে। এই কারণে তারা পাচ্ছেন না এই রেশন কার্ডের সুবিধা। এই রিপোর্ট পেয়ে রীতিমতো নড়েচড়ে বসেছে সরকার। এই নিয়ে মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট থেকেও জারি করা হয়েছে নির্দেশিকা। প্রকাশিত নির্দেশিকা সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

Ration Card নিয়ে প্রকাশিত সরকারি আদালতের নির্দেশিকা।

এই রেশন কার্ড সম্পর্কে জানা যায় যে দেশের মাননীয় সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে যে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে আগামী ৩ মাসের মধ্যে সমস্ত অভিবাসী শ্রমিকদের রেশন কার্ড ইস্যু করতে হবে। মাননীয় বিচারপতি এম আর শাহ ও বিচারপতি আসানউদ্দিন আমানুল্লাহ বিষয়টি দেখছেন। তারা রেশন কার্ড ছাড়াই রাজ্য সরকার এবং জাতীয় সুরক্ষা মিশনের সুবিধা পান কিনা তাও দেখতে হবে, তারা বলেছে।

এই গোটা বিষয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল মহামান্য বিচারালয়ে। সেক্ষেত্রে বলা হয়েছে যে, বহু রাজ্য থেকেই মানুষ এক এক রাজ্যে কাজের সুত্রে যায়। কিন্তু বিগত বছরের কঠোরতম পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ কাজের অভাবে এবং নিজেদের শরীরের দিকে তাকিয়ে ফিরে আসেন নিজের রাজ্যে। সেক্ষেত্রে, নিজেদের আর্থিক এবং খাদ্য রশদ যোগান দিতে বেশ সমস্যায় পড়েন।

আদালতের নির্দেশ এমন যে, আর্থিক সুরাহা না হলেও অন্তত খাদ্যের সুরক্ষা যাতে সুনিশ্চিত হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখা খুব দরকার। সেই দিকে তাকিয়েই এই নতুন সিদ্ধান্ত। এর আগেও মহামান্য আদালত এই বিষয়ে জানিয়েছিল যে, এই ই-শ্রম পোর্টালের সাথে জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা পোর্টালের মিল রাখার কথা। সেক্ষেত্রে সঠিক ডেটাবেস থেকে সঠিক তথ্য পেয়ে সরকারি সমস্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব।

আরও পড়ুন »   Lost Aadhaar Card :আধার কার্ড হারিয়ে গিয়েছে? কি করবেন! জেনে নিন বিস্তারিত

তথ্য অনুযায়ী প্রায় ৮০ কোটি উপভোক্তাকে National Food Security Act তথা NFSA- এর অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যাদের মধ্যে ৮ কোটি মানুষের নেই রেশনের সুবিধা! এ বিষয়ে মহামান্য আদালত নির্দেশ দেয় যে, সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের উচিত, এখনও পর্যন্ত যারা রেশন কার্ড পাননি তাদের রেশন কার্ডের দ্রুত ব্যবস্থা করে দেওয়া। আর সেইজন্যই আদালত আগামী ৩ মাসের মধ্যে ৮ কোটি শ্রমিকের রেশন কার্ড ব্যবস্থা করার নির্দেশ দিয়েছে।

 নতুন Ration Card- এর আবেদন পদ্ধতি।

প্রথমত, পশ্চিমবঙ্গের ফুড এবং সাপ্লাই ডিপার্টমেন্ট অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যাবেন। স্ক্রিনের বাঁ দিক থেকে রেশন কার্ড অপশনটি সিলেক্ট করুন। তারপর ক্লিক করুন এপ্লাই অনলাইন অপশনটির পাশে এবং সিলেক্ট করুন “Apply For New Ration Card For A Family (Form-3)” অপশন টি তে। পেজ আপনার সামনে খুলে যাবে। আপনি যদি মোবাইল থেকে আবেদন করেন তাহলে প্রথমে সার্ভিসেস এন্ড সিটিজেন কর্নার অপশনটিতে ক্লিক করে, ক্লিক করুন ডিজিটাল Ration Card রিলেটেড।

সার্ভিসেস এবার ক্লিক করুন “Apply For New Ration Card For A Family (Form-3)” এই অপশনটিতে। একটা নতুন পেজ আপনার সামনে খুলে যাবে।

কীভাবে আবেদন করবেন?

প্রথমে, আবেদন করতে এই লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে। আপনার নিজের মোবাইল নাম্বার এন্টার করুন। তারপর “গেট ওটিপি” অপশনটিতে ক্লিক করুন এবং আপনি আপনার রেজিস্টারড মোবাইল নাম্বার একটি ওটিপি পাবেন। নির্দিষ্ট জায়গায় ওটিপি এন্টার করুন এবং তারপর ক্লিক করুন প্রসিড অপশনটি তে। পশ্চিমবঙ্গ অনলাইন Ration Card পোর্টাল টির হোমস্ক্রীন আপনার স্ক্রিনের সামনে খুলে যাবে।

আপনি যখন লগইন করবেন তখন আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে যে আপনার কোন পরিবারের সদস্যের ডিজিটাল রেশন কার্ড আছে কিনা। আপনি নো অপশন এর পাশে ক্লিক করবেন। এরপর আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে যে আপনি যে রেশন কার্ডটি বানাতে চান সাবসিডাইজড জন্য না পরিচয় পত্র হিসেবে। এই বিভাগ গুলি থেকে সঠিক অপশনটি বেছে নিন।

আরও পড়ুন »   Aadhaar Card Download : আপনার আধার কার্ড হারিয়ে গেছে বা নষ্ট হয়ে গেছে? পুনরায় কিভাবে পাবেন জেনে নিন

আপনি যদি কার্ডের দ্বারা রেশন পেতে চান তবে আপনি “সাবসিডাইজড ফুড গ্রেইন” অপশনটিতে ক্লিক করুন। এরপর আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে আপনার বাসস্থান “রুরাল” অঞ্চলে না “আরবান” অঞ্চলে। আপনার বাসস্থান হিসেবে আপনি সঠিক অপশনটির পাশে ক্লিক করবেন। আপনার সামনে একটা তালিকা আসবে যেখানে অনেকগুলি অপশন এবং চেকবক্স থাকবে।

সেই চেক বক্সের পাশে ক্লিক করুন যে অপশনটি আপনার জন্য যথাযথ এবং সঠিক। আপনার রেশন কার্ডের ক্যাটাগরি আপনার সিলেক্ট করা অপশন এর উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়। পুনরায় আবার স্ক্রিনের নিচের দিকে আসুন। আপনার কাছে আরেকটি নতুন তালিকা চলে আসবে অনেকগুলো অপশন নিয়ে সেই চেক বক্সের পাশে ক্লিক করুন যেটি আপনার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

তারপর নেক্সট অপশন টি ক্লিক করুন। একটি নতুন পেজ আপনার সামনে খুলে যাবে। এই পেইজটির মধ্যে আপনি আপনার এড্রেস টা দিয়ে দিন। পরবর্তী বিভাগে আপনি সিলেক্ট করুন আপনার নিকটতম ফেয়ার প্রাইস শপ/রেশন দোকান অথবা কেরোসিন ডিলার এর দোকান (যদি প্রযোজ্য হয়)। পেজের একটু নিচের দিকে নেমে আসবেন এবং তারপর আপনি আপনার সমস্ত সংযোগের তথ্য বিস্তারিতভাবে দিয়ে দিন।

Ration Card এর আবেদন পদ্ধতি খুবই সহজ।

আপনি যদি আপনার নাম্বার লগ-ইন রাখতে চান তাহলে আপনি ক্লিক করবেন ‘সেম আস লগইন মোবাইল’ অপশনটির পাশে। আপনি যদি নতুন কোন নাম্বার যোগ করতে চান তাহলে আপনার নতুন নাম্বারটা এন্টার করুন এবং ক্লিক করুন গেট ওটিপি অপশনটির উপর, ওটিপি নির্দিষ্ট জায়গায় বসিয়ে দিন এবং ক্লিক করুন ভ্যালিদেট অপশন টির উপর।

এরপর আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার এবং ইমেইল আইডি দিতে পারেন যদিও এটা দেওয়া বাধ্যকতা নয়। Ration Card করতে আপনার পরিবারের প্রধান বেক্তির নামটি দিয়ে দিন এবং অন্যান্য পরিবারের সদস্যদের পরিচয় পত্র গুলো দিয়ে দিন। পরের বিভাগে আপনি পরিবারের মাথার নাম এবং অন্যান্য পরিচয় তথ্য গুলি এন্টার করে দিন। এরপর ক্লিক করুন এড মোর মেম্বার বোতাম টিতে এবং তাদের পরিচয় তথ্যগুলি ও সাথে সাথে ভরে দিন।

আরও পড়ুন »   Pan Aadhaar Link Fee:প্যান এবং আধার লিঙ্কিং অনলাইনের জন্য কীভাবে ১০০০ টাকা দিতে হয়? ৩১ মার্চের পর কী ঘটবে, জানা আছে?

তারপর নেক্সট অপশনটিতে ক্লিক করুন। আর একটি নতুন পেজ আপনার সামনে খুলে যাবে যার মধ্যে আপনার দেওয়া সমস্ত তথ্য গুলি খুলে যাবে। তথ্যগুলি ভেরিফাই করে নিন। যদি কোন ভুল ত্রুটি থেকে থাকে তাহলে ব্যাক অপশনটিতে ক্লিক করে পারিবারিক তথ্যের পেজে ফিরে গিয়ে ডিটেলস গুলি চেক করে নিন। যদি ওকে থাকে সবকিছু তাহলে “ইটস ওকে” চেকবক্সটি পাশে ক্লিক করুন। তারপর প্রসিড অপশনটিতে ক্লিক করুন। আরেকটি নতুন পেইজ আপনার সামনে খুলে যাবে।

Ration Card- এর আবেদনে ডকুমেন্ট আপলোড পদ্ধতি।

এই নতুন পৃষ্ঠায় আপনাকে আপনার এবং আপনার পরিবারের সদস্যদের আধার কার্ডের একটি স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে। পরবর্তী বিভাগে আপনাকে জিজ্ঞাসা করা হবে যে আপনার আধার কার্ডের ঠিকানা আপনার বর্তমান ঠিকানার মতোই কিনা। যদি বর্তমান ঠিকানা আধার কার্ডের ঠিকানার সাথে মিলে যায় তবে “হ্যাঁ” বিকল্পে ক্লিক করুন এবং যদি না হয় তবে “না” বিকল্পে ক্লিক করুন এবং আপনার ঠিকানা প্রমাণ আপলোড করুন।

Ration Card

ঠিকানা পত্র ছাড়াও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস আপলোড করে দিন যেমন কাস্ট সার্টিফিকেট, ইনকাম সার্টিফিকেট, এডুকেশন সার্টিফিকেট। সমস্ত ফাইল আপলোড করে দেবার পর এ ক্লিক করুন নেক্সট অথবা প্রসিড অপশনে। আপনার সামনে একটি নতুন পেজ খুলে যাবে। নতুন পেজ খুলে যাওয়ার পরে আই সার্টিফাই অপশনটিতে ক্লিক করুন এবং আপনি গেট ওটিপি অপশনটিতে ক্লিক করুন।

নির্দিষ্ট জায়গায় ওটিপি দিয়ে সাবমিট ওটিপি অপশন এর উপর ক্লিক করুন। এই পদ্ধতিটির পরে আপনি একটি নোটিশ পাবেন যে আপনার ফর্ম টি সফলভাবে জমা

Important Links (গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্কসমুহ)

🔥 আমাদের Telegram গ্রুপে যুক্ত হন👉 🔥 যুক্ত হন

🔥 আরও পড়ুন: 👇👇👇 

👉বড়ো আপডেট EPFO-র সুদ নিয়ে!মুখে হাসি ফুটবে সরকারি-বেসরকারি কর্মীদের,এখনই দেখে নিন।

👉Post Office Scheme:সুখবর সুদ বাড়াল কেন্দ্র! দ্বিগুণ টাকা পোস্ট অফিসের এই স্কিমে

👉 Modi Sarkar:মোদী জমানায় প্রায় দ্বিগুণ মাথাপিছু বেড়েছে আয়,কতগুণ জানেন? জানলে অবাক হবেন।

👉প্যান এবং আধার লিঙ্কিং অনলাইনের জন্য কীভাবে ১০০০ টাকা দিতে হয়? ৩১ মার্চের পর কী ঘটবে, জানা আছে?

👉Duare Sarkar Camp 2023-পয়লা এপ্রিল থেকে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প চালু, কি কি প্রকল্পের সুবিধা মিলবে?

Leave a Comment

ফলো পেজ

G-news