গতকাল থেকেই ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকছে কেন্দ্র সরকারের দেওয়া ১.৩০ লাখ টাকা! আপনিও কি পেলেন? জেনে নিন এভাবে!

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এদেশে ক্ষমতায় আসার পর দেশের সাধারণ মানুষদের জন্য নানা ধরনের প্রকল্পের ব্যবস্থা করেছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি হলো প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা। আজও পর্যন্ত আমাদের দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ নিজের পরিবার-পরিজন নিয়ে কাঁচা জরাজীর্ণ বাড়িতে বসবাস করেন। এই সমস্ত মানুষকে বিভিন্ন সময় বিশেষত প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে নানা ভাবে বিপদের সম্মুখীন হতে হয়। এই সমস্যা গুলি থেকে সাধারণ মানুষকে রক্ষা করতে সরকারের তরফ থেকে আর্থিক অনুদান দিয়ে তাদের জন্য পাকা বাড়ির ব্যবস্থা করে দেওয়া হয় এই প্রকল্পের মাধ্যমে।

আবেদন যোগ্যতা:-

আবেদন যোগ্যতা:-

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা মাধ্যমে মূলত দরিদ্র অসহায় যে সব মানুষরা নিজেদের কাঁচা জরাজীর্ণ বাড়িটিকে পাকা বাড়িতে রূপান্তরিত করতে পারেন না, তাদের অর্থ সাহায্য দেওয়া হয়। এই প্রকল্পের সুবিধা পেতে যে যোগ্যতা গুলি প্রয়োজন হয় সেগুলি হল

১) যাদের পাকা বাড়ি নেই, কাঁচা জীর্ণ বাড়িতে বাস করেন তারা এই প্রকল্পের আবেদনযোগ্য বলে বিবেচিত হন।

২) যারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করবেন তাদের সরকারি কোনো দপ্তরে কর্মরত হওয়া চলবে না।

৩) এই প্রকল্পের আবেদনকারীদের নিজস্ব গাড়ি বা বাইক থাকা চলবে না।

৪) প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা মাধ্যমে অর্থ সাহায্য লাভ করে আবেদনকারী যে স্থানে বাড়ি করবেন, সেই জায়গাটি তার নিজের নামে হতে হবে।

৫) ইতিপূর্বে কোন সরকারি প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০০০০ টাকার বেশি অনুদান লাভ করলে সেই ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আবেদন জানানোর যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন না।

আর্থিক অনুদানের পরিমাণ:-

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা অধীনে মূলত টাকা দেওয়া হয় তিনটি কিস্তিতে। যে সমস্ত আবেদনকারী সমতল এলাকায় বসবাস করেন তাদের তিন কিস্তিতে মোট ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা অর্থ সাহায্য দেওয়া হয়। প্রথম কিস্তিতে তাদের দেওয়া হয় ৬০ হাজার টাকা। দ্বিতীয় কিস্তিতে বাড়ি তৈরির কাজ কতটা হয়েছে তা দেখে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। আর তৃতীয় বা সর্বশেষ কিস্তিতে দেওয়া হয় ১০ হাজার টাকা। তবে পাহাড়ি অঞ্চলে যারা এই প্রকল্পের সুবিধা পান তারা সমতল অঞ্চলের মানুষদের থেকে আরও দশ হাজার টাকা বেশি পান। অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার মাধ্যমে তারা মোট অর্থ সাহায্য লাভ করেন ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন »   Lakshmir Bhandar: লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে বড় ঘোষণা সরকারের, মানতেই হবে এই শর্ত!  ক্লিক করে জেনে নিন বিস্তারিত

আবেদন পদ্ধতি:-

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের জন্য আবেদন জানাতে হলে প্রথমেই আবেদনকারীকে কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এরপর হোমপেজে মেনু অপশন এ ক্লিক করার পর PMAYG অপশন নির্বাচন করতে হবে। এরপর নতুন পেজে নির্দিষ্ট স্থানে নিজের আধার নম্বর বসিয়ে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। এর পরবর্তী পর্যায়ে সমস্ত নথিপত্র গুলি নির্দিষ্ট স্থানে দিয়ে সাবমিট করলে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

প্রয়োজনীয় নথিপত্র:-

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা আবেদন জানাতে গেলে নির্দিষ্ট কয়েকটি নথিপত্র অবশ্যই প্রয়োজন হবে। সেগুলি হল

১) আবেদনকারীর দু কপি পাসপোর্ট সাইজ রিসেন্ট ফটোগ্রাফ।

২) ভোটার কার্ড

৩) আধার কার্ড

৪) রেশন কার্ড

৫) নিজস্ব বা পারিবারিক জব কার্ড।

৬) ব্যাংকের পাসবুক

২০২৪ সালে PMAYG টাকা ঢোকার দিনক্ষণ:-

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গে এসে নির্বাচনী জনসভা সম্পন্ন করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সভা মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময় তিনি অভিযোগ জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের অবহেলার কারণে পশ্চিমবঙ্গে এই আবাস যোজনার আবেদনকারীদের টাকা ঢুকতে এত দেরি হচ্ছে। তবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন এই প্রকল্পের টাকা ঢোকা শুরু হবে শনিবার থেকেই। সেই হিসেবে শনি ও রবিবার অনেক আবেদনকারীর অ্যাকাউন্টে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা টাকা চলে আসার কথা। আশা করা যাচ্ছে নির্বাচনী প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার আগেই সমস্ত আবেদনকারী এই প্রকল্পের নির্দিষ্ট কিস্তির টাকা গুলি পেয়ে যাবেন।

পশ্চিমবঙ্গে PMAYG প্রকল্পের সুবিধাভোগীর তালিকা:-

আমাদের রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের জন্য যেসব মানুষ আবেদন জানিয়েছিলেন এবং যাদের আবেদন বৈধ বলে বিবেচিত হয়েছে তাদের নামের তালিকা দেখতে প্রথমেই কেন্দ্র সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে নিজের আধার নম্বর দিয়ে লগইন করতে হবে। এই সহজ কাজটি করলেই আবেদনকারীর আবেদন স্ট্যাটাস এবং নামের তালিকা দেখা যাবে।

Leave a Comment

ফলো পেজ

G-news